ঢাকা, মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

Live

পাইলস অপারেশনে রোগীর মলদ্বার কেটে ফেললেন চিকিৎসক!

১৭:২৯, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ বুধবার

পাইলসের অপারেশন করতে গিয়ে মলদ্বার কেটে ফেলার অভিযোগে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ডা. আখতার আহমেদ শুভর (৫০) বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন এক ভুক্তভুগী।

আজ বুধবার ঢাকা জেলার দোহার থানার খালপাড় বউ বাজারের বাসিন্দা শেখ বাবুল (৭০) ঢাকার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে এ মামলা দায়ের করেন।

ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম ফাইরুজ তাসনীম শুনানি শেষে দোহার থানাকে আদালতে দাখিল করা বাদীর আরজিকে এজাহার হিসেবে গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন।

বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. রজব হোসেন মামলা ও দোহার থানাকে এজাহার হিসেবে গ্রহণের নির্দেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, মামলার বাদী বয়স্কভাতাপ্রাপ্ত একজন দরিদ্র মানুষ। তিনি গবাদিপশু লালন-পালন করে জীবিকা নির্বাহ করেন। পাইলসের সমস্য নিয়ে তিনি আসামির প্রাইভেট চেম্বার দোহার থানার জয়পাড়া ক্লিনিকে গেলে আসামি বাদীকে অপারেশনের মাধ্যমে পাইলন ভালো করে দেবেন বলে আশ্বস্ত করেন। অপারেশনসহ যাবতীয় খরচ ৬০-৭০ হাজার টাকা লাগবে বলে আসামি ভুক্তভোগীকে জানান। বাদী অপারেশনের জন্য গরু বিক্রি করে ৬০ হাজার টাকা সংগ্রহ করে আসামির হাতে তুলে দেন।

এরপর গত ২৬ জুলাই আসামি জয়পাড়া ক্লিনিকে বাদীর অপারেশন করেন। কিন্তু অপারেশনের কয়েকদিন পর থেকে অপারেশনের স্থান দিয়ে রক্তক্ষরণ ও সরাসরি মল বের হওয়ায় বাদী গত ২৮ আগস্ট রাজধানীর মিডফোর্ট হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার জন্য গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, তার ভুল চিকিৎসা হয়েছে। পাইলসের অপারেশন করতে গিয়ে মলদ্বার কেটে ফেলা হয়েছে বলে জানানো হয়। পরবর্তীতে বাদী আসামির সঙ্গে যোগাযোগ করে ভুল চিকিসার কথা জানালে বাদীকে ভয়ভীতি দেখান।      

মামলার শুনানির পর শেখ বাবুল জানান, ওই অপারেশনের পর থেকে বসতে পারেন না। চাপ লাগলেই মল বের হয়ে আসে। তাই তাকে এখন একাধিক লুঙ্গি সঙ্গে নিয়ে ঘুরে বেড়াতে হয়। দুটি গরু বিক্রি করে তিনি এ চিকিৎসা করেছেন।