ঢাকা, শনিবার ০৬ জুন ২০২০ | ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

Live

পণ্য বিক্রিতে কারসাজি করায় ১৯৩ প্রতিষ্ঠানকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা

২০:৫১, ৭ মে ২০২০ বৃহস্পতিবার

করোনাভাইরাস আর রমজান মাসকে পুঁজি করে ভোক্তার সঙ্গে প্রতারণা করছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। কারসাজি করে বেশি দামে পণ্য বিক্রি করছে তারা। এছাড়া ওজনে কম দেয়া ও নিত্যপণ্যের মূল্য প্রদর্শন করছে না। এসব অপরাধে সারা দেশে ৯২টি পাইকারি ও খুচরা বাজারের ১৯৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ মে) রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের বিভিন্ন জেলায় অভিযান করে এসব জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

অধিদফতর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ও পবিত্র রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ও সহনীয় রাখার লক্ষ্যে, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়াধীন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর সারা দেশে ৯২টি বাজারে (পাইকারি ও খুচরা) তদারকিমূলক অভিযান চালিয়েছে। অভিযানে ১৯৩ প্রতিষ্ঠানকে ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা ৫শ টাকা জরিমানা করা হয়।

Fine

ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করেন ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (উপসচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. মাসুম আরেফিন, বিকাশ চন্দ্র দাস ও সহকারী পরিচালক শাহনাজ সুলতানা, আব্দুল জব্বার মন্ডল, রজবী নাহার রজনী, রোজিনা সুলতানা , মাগফুর রহমান, তাহমিনা বেগম ও মাহমুদা আক্তার। ঢাকা মহানগরীতে অধিদফতরের ১০ জন কর্মকর্তার নেতৃত্বে ২৪টি বাজারে (পাইকারি ও খুচরা) এ অভিযান পরিচালিত হয়।

এছাড়া ঢাকার বাইরে বিভাগে উপ-পরিচালক ও জেলায় সহকারী পরিচালকদের নেতৃত্বে ৬৮টি বাজারে অভিযান চালানো হয়।

 

তদারকিকালে পণ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা, অধিক মূল্যে পণ্য বিক্রয়সহ ভোক্তা স্বার্থ বিরোধী বিভিন্ন অপরাধের জন্য প্রশাসনিক ব্যবস্থায় জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়। এছাড়া ৬৩টি স্থানে টিসিবির ন্যায্য মূল্যের পণ্য বিক্রয় (ট্রাকসেল) তদারকি করা হয়।