ঢাকা, সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯ | ৫ কার্তিক ১৪২৬

Live

দামি দানাদার খাবার চাল বাংলাদেশিরা বেশি খায়

১৬:০৮, ১ অক্টোবর ২০১৯ মঙ্গলবার

বিশ্বে দানাদার খাদ্যশস্যের মধ্যে চালের দাম সবচেয়ে বেশি। এই দামি খাবার বাংলাদেশের বাঙালিরাই সবচেয়ে বেশি পরিমাণে খেয়ে থাকে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসেবের বরাতে কৃষি গবেষক ও পুষ্টিবিদ ড. মো. দেলোয়ার হোসেন মজুমদার জানান, বাংলাদেশে জনপ্রতি দিনে ৪১৬ গ্রাম হারে বছরে প্রায় ১৪৮ কেজি চালের ভাত খায়। এর মধ্যে দিনে ১০০ গ্রাম কম খেলে বছরে প্রায় ৫২ লাখ টন চাল উদ্বৃত্ত থাকতে পারে। এর পরিবর্তে সবজি ও ফল খাদ্য তালিকায় নিয়ে আসা গেলে নিশ্চিত হতে পারে দেশের মানুষের কাক্সিক্ষত পুষ্টিমানের খাবারের চাহিদা। এই সঙ্গে কমবে দানাদার ফসল আমদানির পরিমাণ, বাঁচাবে বৈদেশিক মুদ্রা। ক্ষেত্র বিশেষে এই চাল রপ্তানিও করা যেতে পারে।


এক হিসেবের বরাতে তিনি আরো জানান, আগামী ১০ বছরে যদি ভাত খাওয়ার পরিমাণ ২০ ভাগ এবং পরবর্তী ১০ বছরে ৩০ ভাগ কমানো গেলে দেশে চালের দরকার হবে মাত্র কোটি ৩০ লাখ মেট্রিক টন। এটা করা সম্ভব, কারণ এরকমটি সম্ভব হয়েছে জাপান, চীন ও দক্ষিণ কোরিয়ায়।


খাদ্য নিরাপত্তার জন্য প্রথমেই চালের ওপর নির্ভরতা কমাতে হবে। চালের চাহিদা কমোনোর একটা রাস্তা আছে। কিন্তু এর সঙ্গে রয়েছে অনেকগুলো যদি। যদি অর্থনেতিক প্রবৃদ্ধি ভালো হয়, যদি মানুষের জীবন যাত্রার মান বাড়ে। যদি আমাদের খাদ্য তালিকায় চালের পরিমাণ কমে মাছ, মাংস, ডিম, সবজি, দুধ ও ফলমূলের পরিমাণ বাড়ে। যদি দেশের মানুষের ওইসব খাবার কেনা ও উৎপাদন করার ক্ষমতা বাড়ে তাহলে চালে ওপর চাপ কমে যাবে।


এ বিষয়ে বাংলাদেশ অর্গানিক প্রোডাক্টস ম্যানুফ্যক্সাচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুস সালাম বলেন, দাম বেশি হলেও ভাত আহাম্মক বা বোকাদের খাবার। আমরা কেন ভাত খাবো? কে কবে আমাদের ভাত খাওয়া শিখিয়েছিলো তা কেউ জানে না। ভাতে কি আছে? জাপানির ভাত খাওয়া কমিয়ে অনেক দূর এগিয়েছে। ভাত কমানোর কারণে জাপানে মানুষের রোগ-শোক কমে গেছে।


একমাত্র বাংলাদেশ ছাড়া অন্য কোনো দেশ বন্যা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ ছাড়া উল্লেখ করার মতো খাদ্যশস্য আমদানি করে না। এই খাদ্যশস্য (বিশেষ করে গম) আমদানির জন্য দেশ বৈদেশিক মুদ্রা খরচ করে প্রতি বছরে হাজার হাজার কোটি টাকার গম আমদানি করে।
বিশ্বের প্রায় ২০৬টি দেশের মধ্যে ৩৯টি দেশ ধান উৎপাদন করে। বাকি দেশগুলো গম, ভুট্টা, যব, বার্লিসহ বিভিন্ন দানাদার ফসল উৎপাদন করে। বিশ্বের প্রথম সারির ১০টি ধান উৎপন্নকারি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ আয়াতন ও উৎপাদনের দিক থেকে চতুর্থ। 

কৃষি কাগজ/এস এম