ঢাকা, মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০ | ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

Live

জনপ্রিয় হচ্ছে রাণীনগরে মালচিং পদ্ধতিতে বিষমুক্ত সবজি চাষ

আব্দুর রউফ রিপন

২৩:০১, ২৭ মার্চ ২০২০ শুক্রবার

বাংলাদেশেও বর্তমানে কৃষি বিভাগের উদ্যোগে পাইলট প্রোগ্রাম হিসেবে বিভিনś স্থানে এই পদ্ধতিতে বিষমুক্ত সবজি চাষ শুরু হয়েছে। মালচিং মূলত চীন ও জাপান দেশের বিষমুক্ত সবজি চাষের একটি পরিবেশবান্ধব পদ্ধতি। তারই অংশ হিসেবে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলাতে এই প্রথম মালচিং পদ্ধতিতে চাষ করা হয়েছে টমেটো। এই পদ্ধতিতে উৎপাদিত বিষমুক্ত সবজির ফলন ও দাম ভালো পাওয়ায় উৎসাহিত হচ্ছেন স্থানীয় অনেক কৃষকরা।

কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে উৎপাদিত সকল সবজিতেই ব্যবহার করা হচ্ছে মাত্রারিক্ত কীটনাশক যা মানব দেহের জন্য খুবই ক্ষতিকর। কীটনাশক কম ব্যবহার করে বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনের জন্য কৃষি বিভাগ প্রতিনিয়তই উদ্ভাবন করছে পরিবেশবান্ধব নানা প্রযুক্তি ও পদ্ধতি। সেই পরিবেশ বান্ধব কৃষি প্রযুক্তির মধ্যে একটি মালচিং পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে প্রথমেই পরিমাণমতো খাবার দিয়ে জমি প্রস্তুত শেষে সারি ˆতরি করা হয়। সেই মাটির সারিগুলি পলিথিন দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়।

এরপর সারিগুলো দিয়ে নির্দিষ্ট দূরত্বে পলিথিন ফুটো করে সবজির চারা রোপন করা হয়। চারা রোপনের পর থেকে শুধুমাত্র দেখভাল করা ছাড়া আর তেমন কোন পরিচর্যা করতে হয় না। মাটির সারিগুলো পলিথিন দিয়ে ঢেকে থাকার কারণে বাহির থেকে কোন ছত্রাক কিংবা রোগবালাই সেই সবজির চারাতে আক্রমণ করতে পারে না বলে কীটনাশক ব্যবহার করতে হয় খুবই কম। এই পদ্ধতিতে চাষ করা টমেটোর গাছে ঢলে পড়া রোগ হয় না। ক্ষেতের পরিচর্যার জন্য তেমন শ্রমিকের প্রয়োজন হয় না বলে উৎপাদন খরচ হয় খুবই কম হয়। এছাড়া এই পদ্ধতিতে ফলন হয় দ্বিগুন। পরিশ্রম করতে হয় কম। আর এই পদ্ধতি অনেক সহজ লভ্য ও পরিবেশবান্ধব হওয়ায় অনেক কৃষকরা এই পদ্ধতিতে সবজি চাষে উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন।

জেলায় সর্বপ্রথম রাণীনগর উপজেলার বেতগাড়ী বাজারের কৃষক মাসুদ রানা এই নতুন পদ্ধতিতে টমেটো চাষ করেছেন। কৃষক মাসুদ রানা বলেন তিনি প্রথমে ইউটিউবে এই পদ্ধতিতে সবজি চাষ দেখেন এবং পরে স্থানীয় কৃষি অফিসের পরামর্শে ও সহযোগিতায় নিজেই পাইলট প্রোগ্রাম হিসেবে টমেটো চাষ করেছেন।

 
আরও পড়ুন  কুমিল্লায় মাটিবিহীন সবজি চাষে আগ্রহ বাড়ছে

এই পদ্ধতিতে তিনি টমেটো চাষ করে অভাবনীয় ফলন পেয়েছেন। বিষমুক্ত সবজি চাষের জন্য এটি উত্তম পদ্ধতি। কারণ এই পদ্ধতিতে সবজি চাষ করলে ক্ষেতে তেমন রোগবালাইয়ের আক্রমণ হয় না বলে কীটনাশক ব্যবহার করতে হয় খুবই কম। এছাড়া ক্ষেত পরিচর্যার জন্য তেমন শ্রমিকের প্রয়োজন হয় না বলে উৎপাদন খরচ হয় খুব কম। তাই লাভের পরিমানটা অনেক বেশি। আমি আগামীতে এই পদ্ধতিতে মরিচ, তরমুজসহ অন্যান্য সবজির চাষ আরো বৃদ্ধি করবো।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শহীদুল ইসলাম বলেন গতানুগতিক পদ্ধতি থেকে বের হয়ে পরিবেশবান্ধব ও সহজলভ্য পদ্ধতিতে সবজি চাষ করার জন্য কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যেই মালচিং পদ্ধতি আমাদের দেশে আনা হয়েছে। আর মালচিং অত্যন্ত সহজলভ্য, লাভজনক ও বিষমুক্ত সবজি চাষের একটি অন্যতম পদ্ধতি। এটি মূলত বিদেশী একটি পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে সবজি চাষ করলে লাভ হবে অনেক বেশি।

ইতিমধ্যেই মাসুদ রানার দেখাদেখি স্থানীয় অনেক কৃষকরা আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। এই পদ্ধতিতে সবজি চাষে আগ্রহী কৃষকদের আমরা সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করবো। সরকারের ভিশন বিষমুক্ত সবজি চাষকে পুরোপুরি বাস্তবায়ন করতে কৃষি বিভাগ সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে।