ঢাকা, রোববার ১২ জুলাই ২০২০ | ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

Live

চার গুণ দামে পেঁয়াজ-আলু বিক্রি, ৫০ লাখ টাকা জরিমানা

০১:৩৪, ২২ মার্চ ২০২০ রোববার

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়াতেই দেশে বেড়ে গেছে আলু-পেঁয়াজের দাম। আজ শনিবার রাজধানীর যাত্রাবাড়িতে পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৬৫ ও আলু ২৮ টাকা বিক্রি করা হচ্ছিল। খবর পেয়ে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখানে অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় ৩২ জন ব্যবসায়ীকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা  করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। তিনি জানান, শনিবার ভোর ছয়টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত তার নেতৃত্বে অভিযানটি চলে। এ সময় ৬ বছর আগের আমদানি করা মাছ এখনো মজুত করে রাখায় একটি হিমাগারের মালিকদের ২০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

জানা গেছে, যাত্রাবাড়ীতে অভিযানের খবর জানতে পেরে যাত্রাবাড়ীর ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজের দাম কমিয়ে মান ভেদে ৩২ থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি করা শুরু করেন। আলুর দাম কমিয়ে ১২ থেকে ১৪ টাকায় বিক্রি করছিলেন।

অভিযান পরিচালনা করা হয় পুরান ঢাকার শ্যামবাজারেও। অভিযানের খবর পেয়ে সেখানেও ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ ও আলুর দাম কমিয়ে ৩৫ টাকা ও ১৪ টাকায় নামিয়ে আনেন।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম গণমাধ্যমে বলেন, ‘আমরা যাত্রাবাড়ীর ওই আড়তের মালিকদের পেঁয়াজ ও আলুর ক্রয় ও বিক্রয়ের রসিদ পরীক্ষা করি। সেখানে দেখা গেছে তারা যে দামে ওই দুটি পণ্য কিনেছেন তার চেয়ে তিন থেকে চার গুণ দামে বিক্রি করছেন।’

ধারাবাহিকভাবে ঢাকার অন্যান্য বাজারেও অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হবে বলে জানান র‌্যাবের এই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

সারোয়ার আরও জানান, যাত্রাবাড়ীর আরশাদ বরফকল ও হিমাগারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। সেখানে সেখানে বিদেশ থেকে আমদানি করা ছয় বছরের পুরোনো মাছের বিশাল মজুদ পাওয়া যায়। বরফ দিয়ে মাছগুলো সংরক্ষণ করা হচ্ছিল, তবে বেশির ভাগই নষ্ট হয়ে গেছে। এ অপরাধে হিমাগারের ব্যবস্থাপক উত্তম কুমার সাহা, আল মামুন, প্রদীপ চক্রবর্তী ও মো. ইউসুফকে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

কৃষি কাগজ/এস এম

সূত্রঃ আমাদেরসময়